Friday, October 21, 2011

আমরা কুকুরের ও অধম !!!



ছোট্ট এই শিশুটির বিরুদ্ধে অভিযোগ—সে চুরি করেছে। কিন্তু কী চুরি করেছে সেটা বললো না। শিশুটিকে ধরেই কিল, ঘুষি আর মুহুর্মুহু লাথি দিতে থাকে এক যুবক। শত শত লোকের সামনে বুটজুতা দিয়ে তার মাথা চেপে ধরে পদদলিত করে। এরপরই আবার শিশুটির হাতে, পেটে ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে বুটজুতা দিয়ে পদদলিত করতে থাকে। অসহায় শিশুটি হাতজোড় করে, পায়ে ধরে ক্ষমাভিক্ষা করেও নিস্তার পায়নি। জিন্সপ্যান্ট আর গেঞ্জিপরা এই যুবকটি যখন শিশুটির ওপর বর্বর নির্যাতন চালাতে থাকে—কেউ তার সহযোগিতায় এগিয়ে আসেনি। দু-একজন শিশুটির পক্ষে কথা বলতে চাইলে তাদেরও চোরের সহযোগী বলে তেড়ে আসে ওই যুবক। পরে শত শত লোকের সামনেই শিশুটিকে নিয়ে চলে যায়। যদি ক্ষুধার তাড়নায় শিশুটি চুরি করেও থাকে, তারপরও শত শত লোকের সামনে এভাবে তার ওপর নির্যাতন চালানো হলো, পদদলিত করে হাত-পা ভেঙে দেয়া হলো—কেউ প্রতিবাদ করল না। এটা সত্যিই দুঃখজনক। গতকাল খোদ রাজধানী ঢাকার ।পুরানা পল্টন চৌরাস্তার পাশে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির অফিসের সামনে ছোট্ট শিশুটির ওপর বর্বর নির্যাতনের ছবিগুলো ক্যামেরাবন্দি করেছেন আমার দেশ-এর
ফটোসাংবাদিক মীর আহাম্মদ মীরু।
নাহ, আর কিছুই ভাল লাগে না, তিতা লাগে কেন জানি সব কিছু। মনে হয়, নাহ কিছুই পাল্টাবে না, রিপোর্ট এ বলা হয়েছে দূঃখজনক ঘটনা । হা হা হা !! হায়রে দূঃখ! কষ্ট!! বেদনা!! সব কিছুর রং ফিকে লাগে। কি হবে দেশ টার ? বড় বড় চোর দের ধরতে পারস না ব্যঠা ৭-৮ বছরের শিশুর হাত ভেঙে দেস ?? মানুষ তোরা ???

Monday, October 10, 2011

সাঞ্জিনার সাথে আজ আবার দেখা !!

ভোর ৮ টায় ক্লাস। সকালে অনেক কষ্ট করে ক্লাস এ গেলাম। যথারীতি সময় মোতাবেগ ক্লাস শেষ হল। ক্লাস শেষ করে রওনা হলাম ইস্কাটন চাচার অফিস এ একটা বিশেষ কাজের জন্য। রাস্তায় বের হয়ে দেখি ঠিকমত হাঁটারও জায়গা নাই। চির চেনা ঢাকা শহরের সেই পরিচিত জ্যাম। কি আর করার, হেঁটে ই রওনা হলাম।
ঠিক রমনা থানার সামনে যেতেই দেখি সেই চির চেনা মুখ। হ্যাঁ ঠিক ধরেছেন। মুখটা সাঞ্জিনার ই ছিল। কিন্তু সঙ্গে আর ও একটি মুখ ও দেখতে পাই। চিনি নাই, কিন্ত মনে হল তার নতুন বয়ফ্রেন্ড। তারাও জ্যাম ই আটকা পরেছিল। রিকসাতে বসেছিল। দেখেই আমার মনটা খারাপ হয়ে গেল। দুঃখিত মনের চেয়ে মেজাজ বেশি খারাপ হয়ে গেল। আজ বুঝি সারাটা দিন আমার আবার ও খারাপ যাবে। সাঞ্জিনা আমার দিকে তাকাল, না দেখার ভান করে। আমি ও তাই করলাম। যাই হোক, যেমনি কথা তেমনি কাজ। যে কাজের জন্য ইস্কাটন গেলাম তা আর হল না। সারাদিন বাহিরে বাহিরে কাটালাম। রাতে বাসায় এসে দেখি ধুম জ্বর।
Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...